Agaminews
Agaminews Banner

কুড়িগ্রামের ব্রহ্মপুত্র নদে অষ্টমীর স্নানে পুণ্যার্থীদের ঢল


আজকের বার্তা | প্রকাশিত: এপ্রিল ২০, ২০২১ ২:১৮ অপরাহ্ণ কুড়িগ্রামের ব্রহ্মপুত্র নদে অষ্টমীর স্নানে পুণ্যার্থীদের ঢল
বার্তা ডেস্ক ॥
লকডাউনের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে কুড়িগ্রামের চিলমারী উপজেলায় ব্রহ্মপুত্র নদে মঙ্গলবার সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অষ্টমীর স্নান অনুষ্ঠিত হয়েছে। তবে স্নান উপলক্ষে গণজমায়েত এড়াতে নিষেধাজ্ঞার কারণে প্রতিবছরের ন্যায় এবার কোনো মেলা বসেনি। প্রতি বছর এই সময়ে অষ্টমী তিথিতে ব্রহ্মপুত্র নদের চিলমারীতে অষ্টমীর স্নানে দেশ-বিদেশের লক্ষাধিক পুণ্যার্থী অংশ নেন। ৩ থেকে ৪ কিলোমিটার ব্যাপী ব্রহ্মপুত্র চরে বসে অষ্টমীর মেলা। কিন্তু এবার করোনা পরিস্থিতির কারণে লকডাউনে উপজেলা প্রশাসন থেকে অষ্টমীর স্নান ও মেলার উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। তবে নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে অনুসারীরা রাত থেকে চিলমারী উপজেলার বিভিন্ন পয়েন্টে অবস্থান নিতে থাকেন। এবারে স্নানের জন্য ব্রহ্মপুত্র নদের পুটিমারী এলাকা নির্ধারিত স্থান থাকলেও নদের বিভিন্ন পয়েন্টে স্নান করে পুণ্যার্থীরা। শতশত বছর ধরে সনাতন ধর্মাবলম্বীরা এই দিনে ব্রহ্মপুত্র নদের ত্রিধারায় স্নান করে আসছে। স্নান উৎসবে যোগ দেওয়া পুণ্যার্থীরা জানান, ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী আজকের এই দিনে পুন্যস্নান করলে পূর্ণতা লাভ করা যায়। তাই আমরা সামাজিক দূরত্ব মেনে স্নান করতে এসেছি। প্রতি বছরের মেলা আয়োজনকারীরা জানান, করোনা আতঙ্ক আর প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা না থাকলে এবারে প্রায় ৫ লক্ষাধিক হিন্দু ধর্মাবলম্বীর পুণ্যার্থীরা যোগ দিত স্নান উৎসবে। চিলমারী থানার ওসি মো. অনোয়ারুল ইসলাম বলেন, আমাদের টহল দল সকাল থেকে নিষেধাজ্ঞা যাতে অমান্য না করে সে লক্ষ্যে কাজ করছে। যারা সামনে পড়ছে তাদের ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে। চিলমারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ ডব্লিউ এম রায়হান শাহ বলেন, করোনা মহামারির কারণে এ বছর চিলমারীর ব্রহ্মপুত্র নদে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অষ্টমীর স্নানের উপর নিষেজ্ঞা জারি করা হয়েছে। কিন্তু তারপরও অনেকেই ব্রহ্মপুত্র নদের বিভিন্ন পয়েন্টে স্নান উৎসবে অংশ নিয়েছে বলে শুনেছি। পুলিশকে কঠোর অবস্থানে থাকার নিদের্শ দেওয়া হয়েছে।