Agaminews
Agaminews Banner

ঝালকাঠিতে ডাকাত আতঙ্কে পাহারা


আজকের বার্তা | প্রকাশিত: নভেম্বর ০৯, ২০২১ ৪:১৬ অপরাহ্ণ ঝালকাঠিতে ডাকাত আতঙ্কে পাহারা

নিজস্ব প্রতিবেদক:

ঝালকাঠি জেলার বিষখালী নদী তীরবর্তী রাজাপুর ও কাঠালিয়া উপজেলা জুড়ে সোমবার (৮ নভেম্বর) রাত ১১টার পরই ডাকাত আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

এ অবস্থায় রাতভর বিভিন্ন পাড়া, মহল্লা, রাস্তাঘাট ও গ্রামে গ্রামে ডাকাতদের প্রতিহত করতে এলাকার শত শত লোক দলবদ্ধ হয়ে পাহারা দেন।

একইসঙ্গে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে পুলিশের টহল জোরদার ছিল। তাতেও বন্ধ হয়নি ডাকাত আতঙ্ক। উপজেলার প্রত্যেকটি মসজিদে একের পর এক মাইকিংসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাসের কারণে আতঙ্কে সময় কাটছে উপজেলাবাসীর।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, বিষখালী নদীর পার্শ্ববর্তী এলাকায় ডাকাত আতঙ্ক বিরাজ করছে। রাতভর উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় পাহারাদার ও পুলিশের টহল জোরদার করা হলেও আতঙ্ক কমছে না। এ কারণে এলাকার শত শত লোক রাতভর টেঁটা, বল্লম, রড ও লাঠিসোটা হাতে নিয়ে এলাকা ডাকাতমুক্ত রাখতে পাহারা দিচ্ছে।

সোহাগ ও সিদ্দিক নামে দুই যুবক বলেন, রাত ১১টার পরপরই মাইকিং শুরু হলে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে সচেতন থাকার সংবাদ শুনতে পেয়ে এলাকাবাসী একজোট হয়ে ডাকাতদের প্রতিহত করতে মহল্লায় পাহারা শুরু করেছি।

কাঠালিয়ার শৌলজালিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মাহমুদ হোসেন রিপন জানান, বামনা থে‌কে কিছু লোক ধাওয়া খে‌য়ে কাঠা‌লিয়া আসে। প‌রে সেখান‌ থে‌কে পুলিশের সঙ্গে এলাকাবা‌সীও রাস্তায় নে‌মে পাহারা দিতে শুরু করে। এলাকার মসজিদে মসজিদে মাইকিং ক‌রে। কিছুক্ষণ প‌রে দু‌টি ট্রলার আওরাবু‌নিয়ার দি‌কে গেলে পু‌লিশ ও এলাকাবা‌সী ভিড়তে দেয়‌নি এরপ‌রে তারা বেতা‌গির দিকে যায় সেখান‌ থে‌কেও ধাওয়া খায়, পরে তারা কোথায় গে‌ছে তার তথ‌্য জানা নেই।

এ ঘটনায় রাজাপুর ও কাঠালিয়া উপজেলা জুড়ে ডাকাত আতঙ্ক বিরাজ করছে। শীতকালে ডাকাতির আশঙ্কা বেড়ে যায়।

সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. মাসুদ রানা জানান, সোমবার রাত ১১টা থেকে কাঠালিয়ায় ডাকাত আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। থানা পুলিশের সহায়তায় স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে গ্রামবাসীকে সচেতন করা হয়। পরে রাজাপুরেও একইভাবে ডাকাত আতঙ্ক থেকে মুক্ত রাখতে ব্যবস্থা করা হয়। পুলিশ ও জনতা ডাকাতদের রুখে দিয়েছে।