Agaminews
Agaminews Banner

সেই জর্জ ফ্লয়েড হত্যার রায় যে কোন সময়, টানটান উত্তেজনা


আজকের বার্তা | প্রকাশিত: এপ্রিল ২০, ২০২১ ২:০৬ অপরাহ্ণ সেই জর্জ ফ্লয়েড হত্যার রায় যে কোন সময়, টানটান উত্তেজনা
বার্তা ডেস্ক ॥
বিশ্বব্যাপী বিস্তৃত বিক্ষোভের সেই কৃষ্ণাঙ্গ বিদ্বেষমূলক হত্যাকান্ড তথা মার্কিন যুবক জর্জ ফ্লয়েড হত্যা মামলার রায় ঘোষণাকে কেন্দ্র করে সারা আমেরিকায় টানটান উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে। এজন্যে কর্তৃপক্ষ যে কোন পরিস্থিতি মোকাবেলার সর্বাত্মক প্রস্তুতি নিয়েছে।  হোয়াইট হাউজও নজর রেখেছে পরিস্থিতির ওপর। ফেসবুক কর্তৃপক্ষ এই মামলার রায় নিয়ে জণগণকে উষ্কে দেয়ার মত কোন পোস্টিং গ্রহণ না করার সিদ্ধান্ত জানিয়েছে।  টানা ১৪ দিনের যুক্তি-তর্ক শেষে সোমবার জুরিবোর্ড তাদের মতামত উপস্থাপন শুরু করেছেন। অর্থাৎ যে কোন সময় বহুল আলোচিত এই মামলার রায় দেবেন মিনেসোটার বিচারকেরা। গত বছর মে মাসে শ্বেতাঙ্গ পুলিশ অফিসার ডেরেক সৌভিনের হাঁটু চাপায় প্রাণ হারান জর্জ ফ্লয়েড। ৯ মিনিটেরও অধিক সময়ের এই নিষ্ঠুর আচরণের দৃশ্য পথচারি এক স্কুলছাত্রীর স্মার্ট ফোনের ভিডিওতে ধারন করার পর তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।  যদিও মামলার রায় কোন দিকে যাবে, তা বলা যাচ্ছে না। রায়ে সাবেক শ্বেতাঙ্গ পুলিশ কর্মকর্তা হত্যার দায় থেকে মুক্তি পেলে আবারো চরম ক্ষোভে ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ আন্দোলনের কর্মীরা মাঠে নামতে পারেন। এবং ইতিমধ্যেই মিনিয়াপোলিস সিটিতে লোকজনের অবস্থান-বিক্ষোভ শুরু হয়েছে। সেখানে কার্ফিউ জারি করা হয়েছে।  নিউইয়র্ক, বস্টন, ফিলাডেলফিয়া, লসএঞ্জেলেস, ওয়াশিংটন ডিসি সহ বেশ কটি গুরুত্বপূর্ণ স্থানে সমাবেশের ঘোষণা দেয়া হয়েছে। এ অবস্থায় প্রশাসনও প্রস্তুতি নিয়েছে যে কোন ধরনের উত্তেজনা প্রশমনে।  ফেসবুক কর্তৃপক্ষ সোমবার বলেছে, ডেরেক সৌভিনের বিরুদ্ধে প্রদত্ত রায়ের পর কেউ যাতে উষ্কানীমূলক মতামত/মন্তব্য অথবা ভিত্তিহীন/বিদ্বেষমূলক মতামত পোস্ট করতে না, সে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এমনকি লোকজনকে অস্ত্রসহ রাজপথে নামার আহবানও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে না উঠানোর ঘোষণা দিয়েছে ফেসবুক।  ফেসবুকের ভাইস প্রেসিডেন্ট মনিকা বিকার্ট বলেন, আমরা জানি এই বিচার-প্রক্রিয়া অনেক মানুষের জন্যেই বেদনাদায়ক। এজন্যে আমরা উদ্ভূত পরিস্থিতির সঠিক ভারসাম্য রক্ষা করতে চাই। রায়ের পরিপ্রেক্ষিতে নিজ নিজ মতামত প্রকাশের অধিকার সুরক্ষা করতে আমরা বদ্ধপরিকর। একইসাথে সকলের নিরাপত্তার ব্যাপারেও আমরা যথেষ্ঠ সচেতন রয়েছি। এমন কিছু করা যাবে না যাতে জনজীবনের শান্তি বিঘ্নিত হতে পারে। সহিংসতা-উষ্কে দেয়ার মত কোনকিছু ফেসবুক প্রচার করবে না। অপরদিকে, হোয়াইট হাউস থেকে জানানো হয়েছে, এই বিচারের দিকে গুরুত্বের সঙ্গে দৃষ্টি রাখছেন প্রেসিডেন্ট বাইডেন। মামলার রায় ঘোষণার পর তিনি জাতির উদ্দেশে বক্তব্য দেবেন বলেও প্রেস সেক্রেটারি জেন সাকি গণমাধ্যমকে বলেছেন।