Agaminews
Agaminews Banner

মঠবাড়িয়ায় ৫বছরের শিশুর লাশ  ফেলে পালালেন বাবা ও সৎ মা 


আজকের বার্তা | প্রকাশিত: এপ্রিল ১৬, ২০২১ ৪:১৩ অপরাহ্ণ মঠবাড়িয়ায় ৫বছরের শিশুর লাশ  ফেলে পালালেন বাবা ও সৎ মা 
মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি ॥
পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় জন্মদাতা বাবা ও সৎ মায়ের অমানুষিক নির্যাতনে হামজালা নামের ৫ বছরের এক শিশুর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। শিশুটির বাবা মোঃ জুয়েল পেশায় একজন ষ্টীল মিস্ত্রী। মোঃ জুয়েল পৌর শহরের ৩ নং ওয়ার্ডের (স্লুইজগেট সংলগ্ন) ইউসুব মোল্লার ছেলে। বৃহস্পতিবার রাতে থানা পুলিশ শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করে গতকাল শুক্রবার সকালে ময়না তদন্তের জন্য জেলা মর্গে প্রেরণ করেছে। জানাযায়, শিশু হামজালা মা ফাতেমা আক্তার সুবর্ণা ও বাবা জুয়েলের সাথে ৫বছর আগে বিয়ে বিচ্ছেদ হবার পরে শিশুটিকে উপজেলার ঘটিচোরা গ্রামের নানী হাসি বেগম লালন পালন করে আসছিল। গত ১৫/১৬ দিন আগে ওই শিশুটিকে নানীর কাছ থেকে বাবা জুয়েল পৌর শহরের ৩নং ওয়ার্ড স্লুইজ গেটের বাসায় নিয়ে আসে।তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে বুধবার বাবা জুয়েল ও সৎ মা শাহানা আক্তারের সাথে বাক বিতন্ডা হয়।এ সময়ে তাদের অমানুষিক নির্যাতনে শিশুটি আহত হয়। আহতাবস্থায় শিশুটিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে বরিশাল প্রেরন করেন। বাবা জুয়েল ও সৎ মা শাহানা শিশুটিকে বরিশাল না নিয়ে গোপনে হাসপাতাল সড়কের মা ও শিশু ক্লিনিকে ভর্তি করে। ক্লিনিকে শিশুটির অবস্থার অবনতি ঘটলে গত বৃহস্পতিবার সকালে শিশু হামজালাকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। পাষন্ড বাবা ও সৎ মা এম্বুলেন্সে করে শিশুটির লাশ বৃহস্পতিবার গভীর রাতে মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে ফেলে রেখে পালিয়ে যায় । সংবাদ পেয়ে পুলিশ শিশুটির লাশ উদ্ধার করে। মঠবাড়িযা থানার ওসি মাসুদুজ্জামান বলেন,এ ব্যাপারে থানায় সাধারণ ডায়েরী করে শিশুটির লাশ ময়না তদন্তের জন্য গতকাল শুক্রবার সকালে পিরোজপুর জেলা মর্গে পাঠানো হয়েছে। শিশুটির বাবা ও সৎ মা পলাতক রয়েছে। এব্যপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।