Agaminews
Agaminews Banner

ক্রিকেট থেকে ফের নির্বাসিত হওয়ার শঙ্কায় দক্ষিণ আফ্রিকা


আজকের বার্তা | প্রকাশিত: এপ্রিল ২২, ২০২১ ১২:২০ অপরাহ্ণ ক্রিকেট থেকে ফের নির্বাসিত হওয়ার শঙ্কায় দক্ষিণ আফ্রিকা
বার্তা ডেস্ক ॥
দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেটে ফের ফিরতে পারে নির্বাসনের কালো ছায়া। দেশটির সরকার ও ক্রিকেট বোর্ডের মধ্যে মতবিরোধ চরমে। যা মোটেও ভালো চোখে দেখচ্ছে না আইসিসি। দ্রুত এই অভ্যন্তরীণ সমস্যার সমাধান না হলে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ডকে নির্বাসিত করতে পারে বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়মক সংস্থা। চলতি বছর অক্টোবরে ভারতের মাটিতে বসতে চলেছে  টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। কিন্তু তার আগে ভয়ানক সমস্যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। তাই দেশের ক্রিকেট বোর্ডকে বাঁচাতে এগিয়ে এলেন তিন ধরনের ফর্ম্যাটের তিনি প্রোটিয়া অধিনায়ক। এক যৌথ বিবৃতিতে তাদের এমন আশঙ্কার কথা জানিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার টেস্ট, ওয়ান ডে এবং টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক। টেস্ট অধিনায়ক ডিন এলগার, ওয়ানডে অধিনায়ক তেম্বা বাভুমা এবং টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক হেনরিখ ক্লাসেন বিবৃতিতে লিখেছেন, এই মুহূর্তে আমাদের দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেটের ভবিষ্যৎ সম্পর্কে উচ্ছ্বসিত হওয়া উচিত ছিল। কিন্তু আমরা ভবিষ্যত নিয়ে উদ্বিগ্ন। নভেম্বরে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলার কথা প্রোটিয়া পুরুষ ক্রিকেট দলের। কিন্তু প্রশাসনিক বর্তমান অবস্থা আমাদের প্রস্তুতিকে প্রভাবিত করছে। এরকম চলতে থাকলে আমাদের আশঙ্কা দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ডকে নির্বাসিত করতে পারে আইসিসি। এমনটা হলে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে আমরা অংশ নিতে পারব না। কোনও দেশের ক্রিকেট প্রশাসনে সরকারি হস্তক্ষেপ মোটেই পছন্দ নয় আইসিসির। ফলে সেই দেশের ক্রিকেট বোর্ডকে নির্বাসিত করতে পারে বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়মক সংস্থা। অতীতে একই কারণে জিম্বাবুয়েকে নির্বাসিত করেছিল আইসিসি। দলে বর্ণবৈষম্যের কারণে অতীতে নির্বাসিত হয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট। ১৯৭০ সাল থেকে ১৯৯১ অর্থাৎ ২১ বছর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে ব্রাত্য ছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটাররা। নির্বাসন মুক্ত হয়ে ১৯৯১ সালের নভেম্বরে ইডেন গার্ডেন্সে ভারতের বিরুদ্ধে প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলে দক্ষিণ আফ্রিকা। এটি ছিল ওয়ানডে ম্যাচ। আর পরের বছর অর্থাৎ ১৯৯২ সালের এপ্রিলে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্ট খেলে প্রোটিয়া বাহিনী।