আজকের বার্তা
আজকের বার্তা

কুয়াকাটায় নির্মিত হচ্ছে দৃষ্টিনন্দন ওয়াচ টাওয়ার


আজকের বার্তা | প্রকাশিত: ডিসেম্বর ২২, ২০২১ ৬:৩৪ পূর্বাহ্ণ কুয়াকাটায় নির্মিত হচ্ছে দৃষ্টিনন্দন ওয়াচ টাওয়ার

কলাপাড়া প্রতিনিধি ॥

কুয়াকাটায় নির্বিঘেœ সূর্যোদয়-সূর্যাস্তের মনলোভা দৃশ্য অবলোকনের জন্য নির্মিত হচ্ছে ওয়াচ টাওয়ার।

ইতোমধ্যে কুয়াকাটায় ওয়াচ টাওয়ার নির্মাণ প্রকল্পের স্থান নির্বাচন সংক্রান্ত কমিটি প্রতিবেদন দাখিল করেছেন। ‘কনস্ট্রাকশন অব ওয়াচ টাওয়ার এ্যাট কুয়াকাটা ’ শীর্ষক প্রকল্পের জন্য কলাপাড়া উপজেলার লতাচাপলী মৌজায় ২০ একর জমি চিহ্নিত করা হয়েছে। যেখানে দৃষ্টিনন্দন ওয়াচ টাওয়ার নির্মাণ হবে।

অনেক আগেই এলক্ষ্যে পাঁচ সদস্যের একটি উচ্চ পর্যায়ের কমিটি গঠন করা হয়েছে। বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশন এর পরিচালক (অর্থ ও প্রশাসন) ঢাকা এ কমিটির আহ্বায়ক। সদস্য রয়েছেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রনালয়ের প্রতিনিধি, পটুয়াখালীর জেলা প্রশাসক, বাংলাদেশ মহাকাশ গবেষণা ও দূর অনুধাবন প্রতিষ্ঠান এর প্রতিনিধি ও বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশন এর ব্যবস্থাপক (পরিকল্পনা)। এ কমিটি ২০১৬ সালের ৩ মে পটুয়াখালী সার্কিট হাউসে এ সংক্রান্ত এক সভা করেন। কমিটি তখন কুয়াকাটায় ওয়াচ টাওয়ার নির্মাণ কল্পে প্রস্তাবিত স্থান পরিদর্শন করেন। ওয়াচ-টাওয়ার নির্মাণের চিহ্নিত ১৮ একর জমি ছাড়াও প্রস্তাবিত ওয়াচ টাওয়ার স্পট থেকে সৈকতে যাওয়ার জন্য রাস্তা নির্মাণের জন্য পাঁচ একর জমি চিহ্নিত করা হয়েছে।

ওই স্পট থেকে সূর্যোদয়-সূর্যাস্ত দেখতে কোন প্রতিবন্ধকতা না হয় এ জন্য এ স্থানের পূর্ব পশ্চিম দিকে কোন ধরনের হাই রাইজ স্থাপনা নির্মাণ পরিহার করার পদক্ষেপ গ্রহণের সুপারিশ করা হয়। ১৮ একর জমির ওপরে নান্দনিক স্থাপত্য বৈশিষ্টপূর্ণ ১৫০ ফুট উচ্চতা বিশিষ্ট কুয়াকাটা ওয়াচ টাওয়ার নির্মাণ করার মতামত ব্যক্ত করেন কমিটির সদস্যগণ।

বহুমুখী ব্যবহার উপযোগী ওয়াচ টাওয়ার নির্মাণ ছাড়াও বাকি জমিতে ১৫ টি হানিমুন ও ইকোকটেজ, ১০০ আসন বিশিষ্ট রেস্তরাঁ, ৫০০ আসন বিশিষ্ট কনভেনশন হল, ১০০ আসনের মিনি কনফারেন্স হল, ২৫ আসনের কফি সপ, সুইমিং পুল, হেলথক্লাব,জিম,বিউটি সেলুন, মেডিটেশন সেন্টার, ট্যুরিস্ট মার্কেট, সি এক্যুরিয়াম, শিশুদের জন্য বিভিন্ন রাইড, নভোথিয়েটার নির্মাণ করার প্রস্তাব করা হয়েছে। এছাড়া বেড়িবাঁধ হতে বিচ পর্যন্ত নির্মিতব্য রাস্তার ন্যূনতম একটি স্থানে নান্দনিক বৈশিষ্টপূর্ন একটি ঝুলন্ত সেতু নির্মাণ, ছাতাসহ বিভিন্ন স্পটে আইসিসি বেঞ্চ নির্মাণ ; বিচ সন্নিকটে অস্থায়ী কাঠামোতে ফ্রেশ ওয়াটার শাওয়ার, চেঞ্জিং ক্লোসেট, টয়লেট ও লকার নির্মাণ। বিচ হতে সাগরের ন্যূনতম ১০০ ফুট দূরত্বে সাগরের মধ্যে স্থানীয় সামগ্রী দ্বারা পিয়ার নির্মাণ।

এ ছাড়া প্রস্তাবিত টাওয়ারের ধাপে ধাপে সুবিধাজনক ফ্লোর -এ ড্রিংকস কর্ণার, কফি সপ, টয়লেট এবং ওয়াচ ডেক এ দুরবীন সুবিধা, ওয়াইফাই টেলিযোগাযোগ সামগ্রী ও এর ছাদে লাইট হাউস স্থাপন পূর্বক বে-ওয়াচ কার্যক্রম চালু করার প্রস্তাবনা দেয় কমিটি। এ কমিটি বিভিন্ন তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ, ক্যালকুলেশন ও ফিল্ড ভিজিট করে বিভিন্ন ধরনের পর্যবেক্ষণ ও সুপারিশ করেন। কমিটি আরো অভিমত পোষণ করে যে, কেবল মোটেল বা ওয়াচ টাওয়ার নির্মাণ করে কুয়াকাটার পর্যটকদের আকর্ষণ করা যাবে না। এ ক্ষেত্রে আবাসিক ও ক্যাটারিং সুবিধাসহ কুয়াকাটা বৌদ্ধ মন্দির, মিশ্রিপাড়া বৌদ্ধ মন্দির, রাখাইন পল্লী, রাখাইন বিপণী বিতান, ডলফিন ও লেজার শো, ওয়াটার স্কিয়িং, গ্রিণ রিস্পাইট, নভোথিয়েটার, বে-পার্ক,বিচ গেইম সহযোগে প্যাকেজ ট্যুর পরিচালনার জন্য বিভিন্ন সুবিধা প্রবর্তনের মাধ্যমে ব্যতিক্রমধর্মী পর্যটন গন্তব্যে পরিণত করার সুপারিশ করা হয়।

বর্তমানে কুয়াকাটায় ওয়াচ টাওয়ার নির্মাণ করার জন্য প্রস্তাবিত জমির যাচাই-বাছাই করার কাজ চলছে বলে নিশ্চিত করেছেন কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহিদুল হক। সহকারী কমিশনার (ভূমি) জগৎবন্ধু মন্ডল জানান, কুয়াকাটায় ওয়াচ টাওয়ার নির্মাণের জন্য প্রাথমিকভাবে জমি যাচাই-বাছাইয়ের কাজ চলমান রয়েছে।