Agaminews
Agaminews Banner

কলাপাড়ায় শিক্ষকের ওপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন


আজকের বার্তা | প্রকাশিত: নভেম্বর ২৪, ২০২১ ৫:০৭ অপরাহ্ণ কলাপাড়ায় শিক্ষকের ওপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন

কলাপাড়া প্রতিনিধি ॥

বিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ঢুকে কলাপাড়ার পূর্ব মধুখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক মোঃ আখতারুজ্জামানকে পিটিয়ে জখম করার প্রতিবাদে এবং জড়িতদের শাস্তির দাবিতে বুধবার দুপুরে বিদ্যালয়ের শিক্ষক অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে

বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনকে কেন্দ্র করে পরাজিত প্রার্থীর ছেলে নুর সায়েদ খানের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী মঙ্গলবার বিকালে হামলা চালিয়ে ওই শিক্ষককে মারধর করে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে

আহত শিক্ষককে স্থানীয়রা উদ্ধার করে রাতে কলাপাড়া হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ঘটনায় কলাপাড়া থানায় একটি অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

আহত শিক্ষক আখতারুজ্জামান জানান, মঙ্গলবার বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি পদে নির্বাচন ছিল। ওই সময় তিনি বিদ্যালয়ের বার্ষিক পরীক্ষার কার্যক্রম পরিচালনার দায়িত্বে ছিলেন। নির্বাচনে অধ্যক্ষ বশির আহমেদ ৬ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার প্রতিদ্বন্ধী আঃ রাজ্জাক খান পায় তিন ভোট। এর জের ধরে তার ওপর অতর্কিত হামলা চালানো হয়। এসময় হামলাকারীরা তাকে অবরুদ্ধ করে রাখে। এ সময় নির্বাচনের দায়িত্বে থাকা প্রিজাইডিং কর্মকর্তা ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের একাডেমিক সুপারভাইজার মনিরুজ্জামান খান কলাপাড়া থানায় ফোন করেন। অন্যান্য শিক্ষকরা ৯৯৯ তে কল করে পুলিশের সহায়তা নিলে কলাপাড়া থানার এস আই সুজনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আহত শিক্ষককে উদ্ধার করে।

একাডেমিক সুপারভাইজার মনিরুজ্জামান খান বলেন, শিক্ষকের ওপর হামলার ঘটনায় তাৎক্ষণিক পুলিশের সহায়তা নেয়া হয়েছে এবং আহত শিক্ষককে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নির্বাচন শেষে এমন হামলার ঘটনা দুঃখজনক।

এদিকে বুধবার অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা দাবি করেন জরুরী ভিত্তিতে হামলাকারীদের গ্রেফতার করা হোক।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আলাম হোসেন জানান, সহকারী প্রধান শিক্ষক নির্বাচনের কোন দায়িত্বে ছিলেন না। কিন্তু তাকে নির্মমভাবে সবার সামনে মারধর করা হয়েছে। তারা এ ঘটনায় আইনী পদক্ষেপ নিয়েছেন যাতে হামলাকারীরা রক্ষা না পায়।

কলাপাড়া থানার ওসি মো. জসিম জানান, বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নির্বাচনের পর হামলার ঘটনার খবর পেয়েই তাৎক্ষণিক পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করা হয়েছে। আহত শিক্ষককে উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় আহত শিক্ষক বাদি হয়ে একটি এজাহার দিয়েছেন।

অপর পক্ষও একটি অভিযোগ দিয়েছে। পুলিশ বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করে দেখছেন।

তবে এ ঘটনায় কেউ গ্রেফতার হয়নি।