আজকের বার্তা
আজকের বার্তা

বানারীপাড়ায় বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে ‘অন্তঃসত্ত্বা’ তরুণী


আজকের বার্তা | প্রকাশিত: এপ্রিল ৩০, ২০২৩ ১:৩০ অপরাহ্ণ বানারীপাড়ায় বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে ‘অন্তঃসত্ত্বা’ তরুণী
Spread the love

বিয়ের দাবিতে বরিশালের বানারীপাড়ায় প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান নিয়েছেন নিজেকে অন্তঃসত্ত্বা দাবি করা এক তরুণী। প্রেমিকের সঙ্গে বিয়ে না হওয়া পর্যন্ত বাড়ি ছেড়ে যাবে না বলে ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। এদিকে প্রেমিকার বাড়িতে আসার আগাম খবর পেয়ে পালিয়েছে প্রেমিক ২৩ বছরের যুবক আলামিন।

 

আজ রোববার সকালে বরিশালের বানারীপাড়া উপজেলার সৈয়দকাঠী ইউনিয়নের তালাপ্রশাদ গ্রামের মোল্লা বাড়িতে অবস্থান নেন ওই তরুণী। অভিযুক্ত আলমিন ওই বাগির আবদুর রহমান মোল্লার ছেলে। ভুক্তোভোগী তরুণী এই ইউনিয়নের বাসিন্দা। স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মো. জামাল হোসেন এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

 

ওই তরুণী বলেন, আমি ঢাকায় একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করি। মিরপুর-১০ এ একটি ভাড়া বাসায় থাকি। আলামিন ঢাকার একটি কিল্ডারগার্টেনে চাকরি করেন। গত বছরের নভেম্বর মাসের শেষ দিকে মিরপুরে আলামিনের সঙ্গে পরিচয় হয়। একই ইউনিয়নের বাসিন্দা হওয়ায় কথাবার্তা হতো। এক পর্যায়ে বন্ধুত্ব প্রেমের সম্পর্কে রূপ নেয়।

 

তরুণীর অভিযোগ, বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে আলামিন আমার সঙ্গে শারীরিক সর্ম্পক গড়ে। এতে করে তিনি এখন দুই মাসের অন্তঃসত্ত্বা। বিষয়টি আলামিনকে জানালে ঈদের ছুটিতে বাড়িতে এসে দুইজনে বিয়ের করবে বলে জানায়। আলামিন আগেভাগে বাড়ি চলে আসে। আলামিন বাড়িতে এসে তাকে বিয়ে করতে অপরাগতা প্রকাশ করে। পাশাপাশি সব ধরনের যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়।

 

ওই তরুণী বলেন, ঈদে গ্রামের বাড়িতে এসে আলামিনের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করে ব্যর্থ হই। তাকে কল দিলে ফোনের অপর প্রান্ত থেকে তার বন্ধু পরিচয়ে অন্য একজন ফোন রিসিভ করেন। বন্ধু পরিচয়ের ওই ব্যক্তি আমাকে জানান, আলামিন বিয়ে করবে না, এ নিয়ে বাড়াবাড়ি করলে ফল ভালো হবে না বলে হুমকি দেন তিনি। পরে বাধ্য হয়ে আলামিনের বাড়িতে এসেছি, এখন বিয়ে না করলে এখানেই প্রাণ যাবে আমার।

 

আলামিন গত দুইদিন ধরে বাড়ি থেকে বের হয়ে আর ফেরেনি বলে জানিয়েছেন তার বাবা আবদুর রহমান মোল্লা। তিনি বলেন, আমরা এ বিষয়ে কিছুই জানি না। আলামিনও জানায়নি। রোববার সকালে ওই মেয়ে আমাদের বাড়িতে এসে আলামিনের সঙ্গে তার সর্ম্পক আছে এবং তার পেটে আলামিনের সন্তান রয়েছে বলে জানায়। এ কথা শোনার পর থেকে আমরাও আলামিনের সঙ্গে যোগাযোগের করার চেষ্টা করছি। কিন্তু পাচ্ছি না। বিষয়টি আমরা স্থানীয় মেম্বারকে জানিয়েছি।

 

স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. জামাল হোসেন বলেন, ঘটনার শোনার পরে ও ইবাড়িতে গিয়ে মেয়েরটার সঙ্গে কথা বলেছি। বর্তমানে মেয়েটিকে গ্রাম পুলিশের সদস্য বেল্লাল হোসেন জিম্মায় রাখা হয়েছে। পাশাপাশি ওই মেয়ের এলাকার ইউপি সদস্যকে জানানো হয়েছে। সন্ধ্যায় এ নিয়ে সালিশ বৈঠক করার কথা রয়েছে।