Agaminews
Agaminews Banner

বাবুগঞ্জে অসহায় মানুষের পাশে নেই রাজনৈতিক দলের নেতারা


আজকের বার্তা | প্রকাশিত: এপ্রিল ২৬, ২০২১ ৬:০১ অপরাহ্ণ বাবুগঞ্জে অসহায় মানুষের পাশে নেই রাজনৈতিক দলের নেতারা
আরিফ হোসেন, বাবুগঞ্জ প্রতিনিধি ॥
বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলায় প্রাণঘাতী করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে অসহায় মানুষের পাশে নেই আ.লীগ ও বিএনপির নেতারা । প্রাণঘাতী করোনার দ্বিতীয় ঢেউ বরিশালের অসহায় শ্রমজীবীদের পথে বসিয়ে দিচ্ছে। নীরব দরিদ্রতার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে নিম্ন ও নিম্নমধ্যবিত্তরা। কিন্তু প্রথম ঢেউয়ের তুলনায় দ্বিতীয় ঢেউয়ে টানা ১৫ দিনের লকডাউনেও অসহায়ের পাশে নেই দায়িত্বশীলরা। বিশেষ করে বরিশালের বৃহৎ রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি থেকে শুরু করে কোনো দলের শীর্ষ নেতাই সাধারণের পাশে এসে দাঁড়ায়নি। বিত্তবান অধিকাংশ নেতা অনেকটা গা-ঢাকা দিয়ে আছেন।  করোনায় দেশের ৬৬ ভাগ মানুষের আয় কমেছে।  বরিশালে বাবুগঞ্জে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ করোনার প্রথম ঢেউয়ে ইউনিয়ন পরিষদের সঙ্গে সহায়তা করেছিল। এছাড়া ব্যক্তিপর্যায়েও অনেকে খাদ্যসহায়তা দিয়েছেন। অবশ্য করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে বাবুগঞ্জ উপজেলা  ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতাদের এখন পর্যন্ত স্বাস্থ্য সুরক্ষা কিংবা খাদ্যসহায়তা নিয়ে এগিয়ে আসতে দেখা যায়নি। ব্যক্তিপর্যায়েও দলটির শীর্ষ নেতাদের এখন পর্যন্ত কোনো উদ্যোগ নেই। অনেকটা আড়ালেই রয়ে গেছেন দলটির প্রভাবশালী নেতারা। জানতে চাইলে উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আঃ মান্নান হাওলাদার বলেন, আওয়ামী লীগ করোনার প্রথম ঢেউয়ে জনগণের পাশে ছিলেন। উপজেলা প্রশাসন ও ইউনিয়ন পরিষদ পাশাপাশি নানাভাবে সহায়তা করেছে নগর আওয়ামী লীগ। এবারও ঈদ-পূর্ব অসহায় মানুষকে সহায়তার পরিকল্পনা নিয়েছে উপজেলা আওয়ামী লীগ।  তবে এ পরিকল্পনা এখনও চূড়ান্ত হয়নি বলে তিনি জানান। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে এবার বিএনপি নেতাদের জনগণের পাশে দেখা যাচ্ছে না। গত বছর স্বাস্থ্য সুরক্ষাসহ ত্রাণ দিতে দেখা গেলেও এবার অনেকটা নীরব এসব নেতা। জানতে চাইলে উপজেলা বিএনপির দায়িত্বশীল একজন নেতা বলেন, করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে সরকারের দৃশ্যমান কোনো উদ্যোগ নেই। সরকার কী করছে বিএনপি তা ফলো করছে। হাইকমান্ডের সঙ্গে এ বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। জেলা বিএনপি পরিকল্পনাও নিয়েছে। ব্যক্তিপর্যায়ে দেওয়া হচ্ছে। তবে দ্বিতীয় ঢেউয়ের প্রভাব বেশি। তাই লকডাউন, স্বাস্থ্যবিধি মাথায় রেখে তারা এগোচ্ছে। গত বছর দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশে উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে কয়েক শতাধীক মানুষের কাছে খাদ্যসহায়তা দেওয়া হয়েছে বলে দাবি করেছেন বিএনপির ওই নেতা। গত বছর উপজেলা ও ইউনিয়ন জাপার অনেক নেতাকে ব্যক্তিগতভাবে জনগণের পাশে নানাভাবে থাকতে দেখা গেলেও এবার অনেকটা গা-ঢাকা দিয়েছে। উপজেলা জাপার সভাপতি মকিতুর রহমান কিসলু বলেন, জাতীয় পার্টি করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে অসহায় সাধারণ মানুষকে সাহায্য সহযোগিতা করার পরিকল্পনা করছেন । বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পাটির উপজেলার সাধারন সম্পাদক শাহিন হোসেন বলেন, লকডাউনের ১৫ দিন গেলেও সরকারের উদ্যোগ নেই। এ অবস্থা চলতে থাকলে কর্মহীন মানুষের জীবন রক্ষা কঠিন হবে।